লাভজনক ২১ টি কৃষি ব্যবসা আইডিয়া এর সব কিছু দেখুন

3.4
(5)

বাংলাদেশ সমপূর্ণ নির্ভর করে কৃষি এর উপর। তাই আমরা লাভজনক কৃষি ব্যবসা আইডিয়া নিয়ে কৃষি পণ্যকে ব্যবসা হিসেবে দেখতে পারি। এর জন্য আমাদের সমাজে যেমন বেকারত্বের বোঝা দুর করা সম্ভব। ঠিক ততটুকু সম্ভব কৃষি পণ্য এর ব্যবসা করে আয় করা। এছাড়া আমরা ইচ্ছে করলে কৃষি ব্যবসা থেকে বৈদাশিক মুদ্রা উপার্জান করতে পারি। রোদ হোক বর্ষা হোক, খড়া হোক বা বন্যা হোক কৃষকেরা মাঠে কাজ করে যায়। আমরা যদি তাদের জন্য কিছু করতে পারি তাহলে একদিকে কৃষকদের যেমন সুবিধা পাবে ঠিক অপরদিকে আমাদের আয় হবে। একদম গিফ এন্ড টেক। কৃষি ব্যবসাকৃষি ব্যবসার আইডিয়া বললে অনেক কিছু বলা যাবে। তবে কৃষি ব্যবসা করতে গেলে চক্রাকারে অনেক রকম ব্যবসা করা যাবে যেমনঃ কৃষি বীজ থেকে ব্যবসা, কৃষি সার থেকে ব্যবসা, কৃষি সরঞ্জাম থেকে ব্যবসা, কৃষি পণ্য আমদানি ও রপ্তানি থেকে ব্যবসা ও উৎপাদিত ফসল থেকে ব্যবসা। চলুন আজ আমরা এগুলো থেকে সহজে কৃষি ব্যবসার আইডিয়া নিব এবং এখান থেকে বাছাই করে ২১ টি কৃষি ব্যবসার আইডিয়া দেওয়া হল, মনোযোগ দিয়ে পড়ুন :

মাশরুম চাষ করে আয় করুন

মাশরুম চাষ বর্তমান সময়ের একটি চাহিদা মূলক চাষ। আপনি মাশরুম চাষ করে প্রচুর দেশীয় মুদ্রা ও বৈদাশিক মুদ্রা অর্জন করতে পারেন। মাশরুম চাষ করে অনেকেই স্বাবলম্বী হয়ে গিয়েছে।

কৃষি বীজ বিক্রি করে আয় করুন

কৃষিবাণিজ্যের প্রথম শ্রেণীর ব্যবসা হলো কৃষি বীজ এর ব্যবসা। কারন কোন কৃষক ফলন ফলানোর জন্য প্রথমে কৃষি বীজের সরাপন্ন হয়। কৃষিবীজ সংগ্রহ করে তার পর জমিতে কৃষি পণ্য ফলায়। কৃষি বীজের চাহিদা পূরনের জন্য আপনি কৃষি বীজ বিক্রি করার ব্যবসা করতে পারেন।

কৃষি সার ও কীটনাশক ব্যবসা

আপনি কৃষি ব্যবসা করলে আর একটি সুন্দর ব্যবসা করতে পারেন। সেটা হল কৃষি পণ্যের সার ও কীটনাশক ব্যবসা করতে পারেন। কৃষি সার ও কীটনাশক এর চাহিদা প্রচুর তাই আজ থেকেই এই লাভজনক ব্যবসার দিকে ঝুকে পড়তে পারেন।

কৃষি পণ্যের সরাঞ্জাম থেকে আয়

আপনি এই ব্যবসাটি করতে পারেন এর জন্য আপনাকে কামারের সরাপন্ন হতে হবে। কামারের কাছ থেকে আপনি কাস্তে, কোদাল, দা, নিড়ানি সহ কৃষিপণ্য ব্যবহৃত সকল লোহা লস্কের জিনিসপত্র সংগ্রহ করতে পারেন। এছাড়া টিউবয়েল ও বালতি বিক্রি করতে পারেন।

পাওয়ার টিলার ও ট্রাকটর

ইদানিং সময়ে অনেকেই চমি চাষ করার জন্য গরুর ব্যবহার করে না। সবাই বর্তমান যুগের চাষাবাদ যন্ত্র ব্যবহারের মাধ্যমে জমি চাষ করে থাকে। তাই আপনি এই সুযোগটা নিতে পারেন। আপনি একটি পাওয়ার টিলার অথবা ট্রাকটর কিনে মানুষের জমি চাষ করে ভাল আয় করতে পারেন।

গোবর সারের ব্যবসা

জমির পর্যাপ্ত পরিমানে ফলনের জন্য গোবর সারের বিকল্প নেই। আপনি গোবর সারের ব্যবসা করে অনেক টাকা উপার্যন করতে পারেন। এর জন্য আপনাকে গ্রাম থেকে গরুর খামারির কাছ থেকে গরুর গোবর সংগ্রহ করে বস্তায় ভরে বিক্রি করতে পারেন। আর গরুর গোবরের চাহিদা কৃষকের জন্য খুব বেশি হয়।

হাইড্রোপনিক থেকে আয়

হাইড্রোপনিক হলো এমন একটি উপাদান যেখানে আপনার চাহিদা ছাড়াও আপনার প্রতিবেশিদের চাহিদাও পুরন করতে পারেন কোন প্রকার মাটি ছাড়া সবজি উৎপাদন করে। এটি একটি আধুনিক পদ্ধতিতে ফসল ফলানোর বিশেষ ব্যবস্থা।

জৈব ফার্ম এর গ্রীন হাউজ

বর্তমানে রাসায়নিক সার প্রয়োগের ফলে খাদ্যে নানা রকম রোগ হয় এমনকি খাদ্য থেকেও মানুষের মাঝে নানা রকম রোগ বালাই হচ্ছে। আগেরকার দিনে মানুষের তেমন রোগ ছিল না। এটা ভেবে দেখতে পারেন। তাই অনেকেই জৈব সারের দিকে বেশি ঝুকে পড়তেছে। আপনি তাদের চাহিদা মেটানোর জন্য জৈব ফার্ম তৈরি করতে পারেন। তাদের সেবা দিয়ে আপনি অনেক অর্থ উপার্যন করতে পারবেন।

ভার্মিকম্পোট জৈব সারের ব্যবসা

অল্প জমিতে বেশি ফলনের জন্য ভার্মিকম্পোট জৈবসারের চাহিদা অনেক। কেউ চায় এক টুকরা জমিতে অনেক ফসল ফলানোর। কেউ চায় তার বাসার ছাদে শাক শবজি ফলানোর। তাই তাদের জন্য আমার প্রথম সাজেস্ট হবে ভার্মিকম্পোট জৈব সার প্রয়োগ করতে। আর আপরার মত ভার্মিকম্পোট সারের ব্যবসায়ি অনেকটা ভালো উপর্জন করতে পারবেন।

হিমিয়িত চিকেন উৎপাদন করে আয়

এই ব্যবসাটি আপনি শহরে গ্রামে বা পৌরসভার বাজারে করতে পারেন। কারন বর্তমানে বাজারে এই পণ্যটির চাহিদা অনেক বেড়ে গিয়েছে। সারাবিশ্বে হিমায়িত চিকেন ব্যবসার প্রসারও ঘটেছে। তাই আপনি এই ব্যবসাটি করে অনেক আয় করতে পারবেন

ফলমূল ও শাক সবজি রপ্তানির ব্যবসা

আপনি গ্রামের তরতাজা ফলমূল ও শাক সবজি যেমন আমের ব্যববসা, লিচুর ব্যবসা, শাক সবজি সহ ইত্যাতি ইদ্যাদি রপ্তানি করতে পারেন। বিশ্বে এসকল পণ্য আমদানি করার জন্য অনেক ট্রেডার্স রয়েছে। আর শাক সবজিফলমুলের চাহিদা বিশ্বের প্রায় সব দেশেই রয়েছে। এসবের জন্য আপনি ইন্টারনেট এর সহয়তা নিতে পারেন।

ই-কমার্স ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে কৃষি আয়

আপনি একটি এগ্রো রিলোডেড ডমেইন কিনে সেই ওয়েবাসাইটে সুন্দর করে শাক শবজি, ফলের সহ বিভিন্ন তরকারি খাদ্যের ছবি তুলে অনলাইনের মাধ্যমে বিক্রি করতে পারেন। হোম ডেলিভেরি এর ব্যবস্থা করলে আপনি ভাল অর্ডার পাবেন। এসব থেকে আপনার আয় ভালই হবে।

শামুক থেকে আয় করুন

আপনি আপনার পুকুরে শামুক চাষ করতে পারেন। আপনাদের সবার জানা রয়েছে যে শামুকের ভিতরে অনেক মূল্যবান সম্পদ থাকে। শামুক চাষ করার জন্য আপনাকে ট্রেইনিং নিতে হবে আর আপনার পুকুর থাকতে হবে। সবকিছু ঠিকমত হলে এসব কৃষি থেকেও আপনার আয় ভাল হবে।

মাছ চাষ করে আয় করুন

আপনি ইচ্ছে করলে মাছ চাষের ব্যবসা দিতে পারেন। এই মাছ চাষের মাধ্যমে একদিকে যেমন আপনার পরিবারের আমিষের চাহিদা পূরন হবে । অন্যদিকে দেশের আমিষের ঘাটতি পূরন করে আয় করতে পারবেন। এছাড়া আপনার ব্যবসা ভাল হলে মাছ রপ্তানি করে বৈদাসিক মূদ্রা অর্জন করতে পারবে।

নার্সারির ব্যবসা করে আয়

আপনি শুরু করতে পারেন নার্সারির ব্যবসা। বাংলাদেশে গাছের চারার চাহিদা অনেক। তাই আপনি যদি নার্সারির ব্যবসা করেন তাহলে অনেক আয় করতে পারবেন। প্রথম অবস্থায় ফুলের নার্সারির মাধ্যমে শুরু করলেও ফলজ বনজঔষধি গাছের নার্সারি দিতে পারেন।

ফুলের ব্যবসা থেকে আয়

বিশ্বে ফুলের চাহিদা অনেক। প্রায় সব অনুষ্ঠানে ফুলের প্রয়োজন পরে। আপনি ফুলের ব্যবসাকে বেচাে নিতে পারেন। একদিকে যেমন আপনি ফুলের ভালবাসায় আবদ্ধ হচ্ছেন ঠিক অন্যদিকে মানুষের ভালবাসায় আবদ্ধ হচ্ছে আপনার ফুল। আর টাকা উপার্জনও ভাল হচ্ছে।

ফলের ব্যবসা ও চাষ করে আয়

ফুলের পর ফল চলে আসলো, আর ফলের চাহিদাও কিন্তুু কম নয়। গড়ে প্রতিদিন ৭৮% মানুষ ফল খায়। তাহলে বুঝতেই পেরেছেন যে ফলের চাহিদা কেমন। আপনি ফল চাষ করার জন্য ফলের বাগান তৈরি করুন। কিছুদিনের মধ্যেই আপনার বাগানের ফল বিক্রি করে ফল (আয়) পাওয়া শুরু করবেন।

মৌমাছি চাষ করে আয়

আপনি এবার ফুল ও ফল থেকে আয় করতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে মৌমাছি চাষ করতে হবে। মৌমাছি থেকে কি দেয় তা আপনাদের সকলের জানা রয়েছে। মার্কেট ও মধুর চাহিদা প্রচুর। তাই মৌমাছি থেকে প্রাপ্ত মধু সংগ্রহ করে বিক্রি করতে থাকুন। আপনার আয় শুরু হয়ে যাবে।

পোলিট্রি ফার্ম থেকে আয় করুন

 

পোলিট্রি ফার্ম একটি কৃষিপ্রধান উৎপাদনের মধ্যে পরে। তাই আপনি পোলিট্রি ফার্ম দিয়ে বসতে পারেন। এর জন্য সরকারি ট্রেইনিং করে বসতে হবে। পরিচর্যা ও রোগ বালাই দমনের দক্ষতা থাকতে হবে। পোলিট্রি ফার্ম থেকে একদিন লাভের মুখ অবশ্যই দেখবেন।

কৃষিল্যাব থেকে আয়

আপরি কৃষি পরামর্শ থেকে শুরু করে কৃষি পণ্যের ল্যাব দিয়ে দিতে পারেন। যেখানে অনেক কৃষক আপনার থেকে পরামর্শ ও সেবা নিতে পারবে। এছাড়া কৃষকে ফসল সঠিক পদ্ধতিতে কৃষি ল্যাব এ পরীক্ষা করতে পারবে। একদিকে যেমন সেবা দিতে পারতেছেন অন্যদিকে আপনার আয় হচ্ছে।

উপরে আপনাকে কৃষি ব্যবসার উপর বেশ কিছু ধারনা দেওয়া হয়েছে। আপনি ব্যবসা করুন সঠিক পদ্ধতি অনুশরন করুন সফল হবেন অবশ্যই। এছাড়া হাজার হাজার কৃষি ব্যবসা রয়েছে। এখানে বাছাই করা ও কম্পিডিশন এ কম কৃষি ব্যবসার সাথে সেগুলো আপনাদের মাঝে তুলে ধরা হয়েছে । আপনার যদি কৃষি ব্যবসার আইডিয়া থাকে তাহলে কমেন্ট বক্স এ লিখে দিতে পারেন। ধন্যবাদ

লেখাটি আপনার কাছে কেমন লেগেছে, অনুগ্রহ করে সে অনুযায়ী ভোট দিন

ভোট দিতে স্টার বাটনে চাপুন

We are sorry that this post was not useful for you!

Let us improve this post!

Tell us how we can improve this post?

পোস্টটি ভাল লাগলে শেয়ার করুন

Leave a Comment